সামাজিকতায় ‘দূরত্ব’ বজায় রাখুন

‘করোনা’ ভাইরাসের বিস্তার রুখতে ‘সামাজিক দূরত্ব পালন’ (Social Distancing) অত্যন্ত কার্যোপযোগী একটি পদক্ষেপ।

#মহামারীর এই সময়ে- দাওয়াত খাওয়া কিংবা খাওয়ানো (অতিথি আপ্যায়ন) বন্ধ রাখুন

# পরিবারের বাইরের মানুষদের (পোস্টম্যান, দুধওয়ালা, হকার, ঠিকা-ঝি ইত্যাদি) ঘরে প্রবেশ নিরুৎসাহিত করুন,

# মোবাইলে / ফোনে / ইন্টারনেট / ভিডিও-অডিও চ্যাট ইত্যাদির মাধ্যমে বন্ধু বান্ধব , আত্মীয়-স্বজনের সাথে যোগাযোগ বজায় রাখুন।

# বিশ্বের বেশিরভাগ ইসলামিক চিন্তাবিদ বিভিন্ন হাদিস কোরানের ব্যাখ্যার মাধ্যমে এই মহামারীর সময়ে জুম্মা সহ সব নামাজ জামাতে মসজিদে না পরে বাসায় পড়ার পক্ষে মত দিয়েছেন, তাই মসজিদে যাওয়াটা (কিংবা- অন্য ধর্মাবলম্বীদের জন্য- কোনো ধর্মীয় উপাসনালয়ে জোড়ো হওয়াটা) আপাতত বন্ধ রাখুন।

# বাসা থেকে না বেরুনোই ভালো। আর একান্ত প্রয়োজনে বের হলেও –

  • যথাযথ প্রস্তুতি নিয়ে বেরুতে হবে (‘মাস্ক’ পরা ইত্যাদি)
  • ‘ব্যস্ত অফিস সময়ে’ বের না হয়ে যখন ট্রাফিক / মানুষজন কম … এমন সময়ে বের হওয়া বুদ্ধিমানের কাজ হবে।
  • জন-সমাবেশ (gathering ) এড়াতে হবে – পথে ঘাটে বাজারে ঘেঁষা ঘেষি না করে সর্বত্র পরস্পরের মধ্যে ন্যূনতম ৫ ফুট (৩/৪ হাত) দূরত্ম বজায় রাখতে হবে।
  • হাঁচি -কাশি দেয়া ব্যাক্তিদের থেকে দূরে থাকাটা উত্তম।
  • দৈহিক সংস্পর্শ – হ্যান্ডশেক, কোলাকুলি ইত্যাদি সম্পূর্ণ নিষেধ।
  • নিজের হাঁচি-কাশি আসলে টিস্যু / রুমাল দিয়ে মুখ ঢেকে কিংবা জামার হাতায় মুখ গুঁজে কষ্টে হবে যাতে মুখের লালা ইত্যাদি বাতাসে না ছিটায়। টিস্যু যত্র -তত্র না ফেলে ‘ময়লার বাক্সে ফেলতে হবে।

# ব্যবসা-বাণিজ্য বা চাকুরীর প্রয়োজনে কর্মস্থলে অবস্থান করতে হলে

  • সহকর্মীদের থেকে নিরাপদ দূরত্ম (৩/৪ হাত) দূরত্ম বজায় রাখুন, (হ্যান্ডশেক, কোলাকুলি ইত্যাদি সম্পূর্ণ নিষেধ) .
  • অপ্রয়োজনীয় মিটিং, দৈহিক উপস্তিতি বাদ দিন … ফোন বা ইন্টারনেট-এ যোগাযোগ রাখুন।
  • প্রতিদিন ব্যবহারের আগে নিজের চেয়ার -টেবিল যন্ত্রপাতি ইত্যাদি ‘জীবাণু নাশক’ স্প্রে দিয়ে মুছে নিন।
  • ঘন ঘন সাবান বা এলকোহল-বেইসড ‘স্যানিটাইজার’ দিয়ে হাত ধুতে ভুলবেন না এবং মুখে, নাকে,চোখে যেন হাত না যায়।
  • অফিসের দরজা-জানাল খোলা রাখুন রোদ /বায়ু চলাচলের জন্য।
  • অফিসে খাবার একত্রে না খেয়ে ,নিজের ডেস্কে বসে বা অন্য কোথাও একাকী খান।
  • কাজ শেষে বেরুবার আগে আরেকবার সব মুছে ‘জীবাণুমুক্ত’ করে নিন (বিশেষ করে -যদি পরবর্তী শিফটে অন্য কেউ আপনার একই জায়গায় কাজ করে).

# বাইরে থেকে বাসায় ফিরে – বাইরের পোশাক, জুতা, যন্ত্রপাতি “জীবাণু নাশক’ দিয়ে মুছে নিতে হবে , … এগুলো ঘরের জিনিসের সাথে না মিশিয়ে বাইরে রাখাই ভালো। করোনা জীবাণু সাধারণ সাবানেও মারা যায় , তাই বাইরের পোশাক ইত্যাদি সাবান দিয়ে ধুয়ে নেয়া দরকার। হাত ধুতে হবে সাবান দিয়ে ফেনা ফেনা করে প্রতি ক্ষেত্রে।

Leave a Reply

RSS
Follow by Email
Facebook